বৃহস্পতিবার, ১৩ Jun ২০২৪, ০৭:০৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
চট্টগ্রাম ১০দফা দাবিতে চতুর্থ শ্রেণি সরকারি কর্মচারী সমিতির স্মারকলিপি প্রদান সোনাইমুড়ী মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জায়গা দখল নিতে হামলা, নারীসহ ৫ জন আহত হারানো বিজ্ঞপ্তি চমেক হাসপাতালে জরুরী বিভাগে টিকিটে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার অভিযোগ দরবারে মূসাবীয়ার ৭৭ তম পবিত্র খোশরোজ শরীফ অনুষ্ঠিত আনোয়ারায় মাজার মসজিদের  জমি দখলের অপচেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন ইউসেপ স্কুলে নবীন বরন ও এস এস সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াতের জয় ডাক্তার সেজে আইসিইউতে ল্যাব টেকনিশিয়ান বাকলিয়া থানার বিশেষ অভিযানে মোটরসাইকেলসহ চোর চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

নেত্রকোনায় বিএনপির কর্মসূচিতে আ.লীগের হামলার অভিযোগ, আহত ২৮

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

নেত্রকোনায় বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি পণ্ড করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে।
শনিবার বিকালে শহরের কুড়পাড় এলাকার একটি বাসায় সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি নেতারা বলেন, সকালে আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায়।

এ সময় ২৮ জন নেতাকর্মী আহত হন। এ ছাড়া পুলিশ বিএনপির ৫ জন নেতাকর্মীকে আটক করে। শুক্রবার রাতে আরও ১০ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

জেলা বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, সরকারের পদত্যাগ, তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন, তেল, গ্যাস, বিদ্যুৎ, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম কমানোসহ বিভিন্ন দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার সকালে জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা পদযাত্রা কর্মসূচির আয়োজন করে।
কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার জন্য প্রতিটি উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড থেকে বিএনপি এবং অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা শহরের পারলা বাসস্টেশন, বনোয়াপাড়া, কুড়পাড়, মোক্তারপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় জড়ো হতে থাকেন।
কিন্তু আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে সেখানে গিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে ।
এ সময় ব্যানার, ফেস্টুন ছিনিয়ে নিয়ে তাতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া, মোটরসাইকেল ও মাইক্রোবাস ভাঙচুরসহ বেশ কিছু ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনায় বলে বিএনপির অভিযোগ।
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কুড়পাড় এলাকায় পুলিশ ২ রাউন্ড ফাঁকাগুলি ছুড়ে। হামলায় বিএনপির অন্তত ২৮ জন আহত হন।
আহতদের মধ্যে নেত্রকোনা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন, বারহাট্টা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সাবেক জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহবায়ক মানিক আজাদ, কেন্দুয়া উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক নুরুল ইসলাম, মদন উপজেলা বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব বদরুজ্জামান শেখ, সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আতিকুর রহমান, পূর্বধলা ছাত্রদালের আহবায়ক সালমান রহমান, সদস্য সচিব সাজু আহমেদ, সদর উপজেলা কাইলাটি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি এনাম আহমেদ, রৌহা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ, সদর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক কামরুল হক প্রমুখ নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

জেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল্লাহ আল মামুন রণি বলেন, সরকার দমন-পীড়ন করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তল্লাশি চালিয়ে গ্রেফতার করা হচ্ছে। যত বাধাই আসুক বিএনপি যুবদল, ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা রাজপথ ছাড়বে না।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম হিলালী বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আমাদের ওপর হামলা করে। এতে আমাদের ২৩ জন নেতাকর্মী আহত হন। এরপর পুলিশ উল্টো আমাদের ৫ জন নেতাকর্মীকে আটক করে নিয়ে যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত